লেবু দিয়ে ওজন কমানোর উপায় – ওজন কমান মাত্র ৭ দিনেই

লেবু দিয়ে ওজন কমানোর উপায়

অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়ামের অভাব, গ্যাজেট নির্ভর যাপন আধুনিক জীবনে ডেকে এনেছে নানা লাইফস্টাইল ডিজিজ। সময়ের অভাবে যারা নিয়মিত ব্যায়ামের সময় পান না, তাঁদের জন্য রইল লেবু দিয়ে ওজন কমানোর সহজ টিপস।

দেহের অতিরিক্ত ওজন কমাতে সবচেয়ে দরকারী যে বিষয়টি তা হলো স্বাস্থ্যকর বা ব্যালান্সড ডায়েট, নিয়মিত শরীরচর্চা ও স্বাস্থ্যকর  লাইফস্টাইল। তবে ওজন কমাতে মধু ও লেবু—এই দুটি প্রাকৃতিক উপাদানও বেশ সহায়ক বা কার্যকর।

লেবু দিয়ে ওজন কমানোর উপকারিতা

  • মধু ও লেবুর মিশ্রণের পানীয় শরীর থেকে টক্সিন বের করে, শরীরের বিশুদ্ধিকরণ ঘটায় ।
  • মেটাবলিজম বা হজমশক্তি বাড়ায় এই পানীয়, ফলে ওজন কমে।
  • ঠাণ্ডা লাগলে এই পানীয় পান করলে শ্লেষ্মা বের করতে সাহায্য করে এবং গলা ব্যথায় ভালো কাজ করে।
  • দেহের শক্তি বাড়ায়, আলস্য কমায়, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
  • এই পানীয়  কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

১। ভেষজ লেবু চা

ওজন কমানোটা রীতি মতো একটা চ্যালেঞ্জ। একদিকে যেমন খাবারে নিয়ন্ত্রন রাখতে হয় তেমনি কি খেলে ওজন কমবে তারও খেয়াল রাখতে হয়। ওজন কমানোর প্রক্রিয়া আপনি যোগ করতে পারেন  লেবু চা। এই চা রেডিমেট কিনতে পাওয়া যায়। আবার ঘরেও বানানো যায়।

ঘরে বানাতে গেলে আপনার চাই, গ্রিন টি, আদা, আর লেবু রস। চায়ের জল গরম করার সময় এতে সামান্য আদা থেঁতো করে দিন, জল নামানোর ৩০ থেকে ৪০ সেকেন্ড আগে গ্রিন টি পাতা দিয়ে আগুন নিভিয়ে নিন এবং পাত্রটি ডেকে রাখুন (গ্রিন টি বেশিক্ষণ জ্বাল হলে তেঁতো হয়ে যায়)।

কাপে নিয়ে এতে ২ চামচ লেবুর রস যোগ করুন। তৈরি হয়ে গেলো আপনার ভেষজ লেবু চা।  প্রতিদিন দিনে দুবার এই চা পান করুন। এতে চিনি বা মধু মেশানোর কোন প্রয়োজন নেই।

২। লেবুর জুস

সকালের পানীয় বা ভেষজ লেবু চা এর পাশাপাশি ভিবিন্ন রকমের জুস বানিয়েও লেবু রস পান করতে পারেন। লেবু জুস বানানোর জন্য জন্য চাই একটি পাতিলেবুর রস, এক কাপ বীজসহ তরমুজ, দুই চা চামচ পুদিনা পাতার রস বা ৬ থেকে ৮ টি পুদিনা পাতা। এই সব উপকরণ ব্লেন্ডারে এক সঙ্গে ব্লেন্ড করুন।

জুস তৈরি হয়ে গেলে সামান্য বরফকুচি দিয়ে পান করুন। এই পুষ্টিকর পানীয় আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করবে। তবে এই পানীয়টি আপনি গ্রীষ্মকালেই তৈরি করতে পারবেন। কারন সব সিজনে তো আর তরমুজ পাবেন না। তাই শীতকালে তরমুজের পরিবর্তে কমলা লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন। অন্য সিজনে শশা ব্যবহার করা যেতে পারে।

৩। লেবু ও মধু

এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ২ চা চামচ লেবুর রস ও ১ চা চামচ মধু মেশান। সকালে খালি পেটে পান করুন এই পানীয়। নিয়মিত পান করলে ওজন কমবে দ্রুত।৪। লেবু ও পুদিনা পাতা

এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ২ চা চামচ লেবুর রস ও কয়েকটি পুদিনা কুচি মেশান। পানীয়টি প্রতিদিন পান করুন। স্বাদ বাড়াতে মধু যোগ করতে পারেন এতে।

৫। লেবুমিশ্রিত সালাদ

লেবু ও শসা স্লাইস করে এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে রাখুন সারারাত। পরদিন সকালে পান করুন পানীয়। শসায় থাকা পটাসিয়াম হজমের গণ্ডগোল দূর করে। ভেজিটেবল সালাদ খাওয়ার আগে একটি পুরো লেবুর রস দিয়ে নিন। আরও পুষ্টিকর হবে সালাদ।

৬। লেবু ও আদা

আদা ও লেবুমিশ্রিত পানীয় নিয়মিত পান করলে বাড়তি মেদ দূর হবে।

বাড়তি সতর্কতা

লেবু দিয়ে ওজন কমানোর উপায়টি ফলো করার পাশাপাশি এই নিয়মগুলো মেনে চলুন।

  • আগে পানি গরম করে তারপর লেবু ও মধু মেশাবেন।
  • মধু বা লেবু মেশানো পানি কখনোই গরম করতে যাবেন না।
  • পানি গরম না করে এটি পান করেন, তবে বিপরীত ফল হতে পারে। ওজনও কমার বদলে বেড়ে যেতে পারে।
  • যাঁদের গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা আছে, তাঁরা এটি খালি পেটে খাবেন না। কারণ লেবু অ্যাসিডিক।
  • লেবুর এসিড দাঁতের এনামেলের জন্য ক্ষতিকর। তাই এই পানীয় পানের সঙ্গে সঙ্গে মুখ ধুয়ে নিতে ভুলবেন না।

আরো পড়ুন

ওজন কমানোর ব্যায়াম ছবি সহ – ওজন কমান মাত্র ১ মাসেই!

লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম ছবি সহ

সারাংশ

দ্রুত ওজন কমানোর জন্য ডায়েট মেন্যুতে লেবু রাখা চাই। লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ক্যালোরি ক্ষয় করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালে লেবুমিশ্রিত বিভিন্ন পানীয় পান করলে অতিরিক্ত মেদ দূর হবে। তবে পাশাপাশি শরীরচর্চা ও অন্যান্য ডায়েট চার্টও মেনে চলা চাই ঠিকঠাক।

বোনাস টিপস (Bonus Tips)

লেবু দিয়ে ওজন কমানোর উপায় সম্পর্কে জানার পর ওজন কমানোর সমাধান তো হয়ে গেল, কিন্তু প্রতিদিন কতটুকু ওজন কমছে নাকি বাড়ছে তা অবশ্যই লক্ষ রাখতে হবে। এছাড়া সঠিক (BMI) জানতে বাসায় ভাল মানের ওজন মাপার মেশিন রাখতে পারেন, এতে করে আপনি নিয়মিত আপনার ওজন মেপে দেখতে পারবেন যে উচ্চতা অনুযায়ী আপনার ওজন ঠিক আছে কিনা। এখানে ভাল মানের একটি ওজন মাপার মেশিনের ছবি দেয়া হলো, ছবিতে ক্লিক করে দাম ও অন্যান্য তথ্য জানতে পারবেন।

Digital Weighing Machine with BMI Calculation for home use

সেরা ৫ টি ওজন মাপার মেশিনের নাম ও দাম জানতে এখানে ক্লিক করুন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *